আনুষ্ঠানিক ভাবে আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াত আইভী ‘ভবিষ্যৎ নগর উন্নয়ন পরিকল্পনা’র রূপরেখা তৈরি করেছেন। তার এই উন্নয়নের রূপরেখা ব্রুটশীট আকারে প্রকাশ করা হয়েছে। সোমবার সাংবাদিকদের কাছে আইভীর আগামী উন্নয়নের রূপরেখার ব্রুটশীট বিতরণ করা হয়েছে।
উন্নয়নের রূপরেখায় আইভী আগামী ৫ বছর মেয়াদী ১৬টি নগর উন্নয়ন পরিকল্পনা এবং ৬টি দীর্ঘ মেয়াদী উন্নয়ন পরিকল্পনার কথা বলেছেন। ৫ বছর মেয়াদী উন্নয়ন পরিকল্পনা গুলো হলো- চলমান উন্নয়ন কর্মসূচি দ্রুত বাস্তবায়ন করা। সবুজ এবং পরিকল্পিত নগর গড়ে তোলার জন্য মাস্টার প্লান মোতাবেক সগক উন্নয়ন, সমন্বিত ড্রেনেজ সিস্টেম পয়ঃনিষ্কাশন, জলাধার সংরক্ষণ এবং সংস্কারের ব্যবস্থাগ্রহণ করা। বর্জ ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করে কার্বনমুক্ত, পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে গড়ে তোলা। স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য কমিউনিটির ক্লিনিক, নগর হাসপাতাল এবং অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস টালু করা। এর পাশাপাশি শতভাগ স্যানিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা। সিটি কর্পোরেশনের সকল স্তরে সুশাসন নিশ্চিত করা। তথ্য প্রযুক্তি সেবার মাদ্যমে ডিজিটাল নগরী গড়ে তোলা। সিটি কর্পোরেশনের নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে তথ্য-প্রযুক্তি উন্নয়ন সাধনের মাধ্যমে সকল কার্যক্রম অটোমেশন করা এবং তিনটি অঞ্চলে ওয়ান স্টপ সার্ভিস চালু করা। দারিদ্র বিমোচনের জন্য ক্ষুদ্র ঋণ কর্মসূচির পরিধি সম্প্রসারণ করা। সিটি কর্পোরেশনের হতদরিদ্র পরিচ্ছন্ন কর্মীদের জন্য স্বল্প ব্যয়ের আবাসন ব্যবস্থা চালু করা। নতুন বাস টার্মিনাল, ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণসহ সিটি সার্ভিস চালু করার উদ্যোগ নেয়া। সিটি কর্পোরেশনের আয় বৃদ্ধির জন্য নিজস্ব ভূমিতে মার্কেট এবং ফ্লাট নির্মাণ করা এবং কাঁচাবাজার সমূহের উন্নয়ন করা। কবরস্থান ও শ্মশানের উন্নয়ন করা। হেরিটেজ পার্কসহ বিনোদনের জন্য শিশু পার্ক নির্মাণ করা। ঐতিহাসিক স্থানসমূহ সংরক্ষণের উদ্যোগ নেয়া। নারীর ক্ষমতায়নের জন্য শিক্ষা এবং কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা ও শীতলক্ষ্যা নদীর পানি দূষণমুক্ত রাখার জন্য কার্যক্রম গ্রহণ করা।
আর ৬টি দীর্ঘ মেয়াদী উন্নয়ন পরিকল্পনা গুলো হলো সুয়ারেজ সিস্টেম স্থাপনকরণ এবং ড্রেনেজ সিস্টেমের অধিক উন্নতিকরণ। শীতলক্ষ্যা নদীর দুই পাড়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ মহাসড়কের সঙ্গে সংযোগ স্থাপনকারী সার্কুলার রোড নির্মাণ করা। সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার জন্য পানি শোধনাগার নির্মাণ করা। নারায়ণগঞ্জকে মেট্রো রেলের সঙ্গে যুক্ত করে ট্রাফিক ব্যবস্থার উন্নয়ন সাধনপূর্বক যাজটমুক্ত নগরী গড়তে সহায়তাকরণ এবং নগরীর শিক্ষার উন্নয়নে আধুনিক শিক্ষা প্রীতষ্ঠান নির্মাণকরণ।

ভাগ

কোন মন্তব্য নেই